আমি কোভিড পজেটিভ এবং এতে আমার কোনো লজ্জা নেইঃ ডা. হামিদা আক্তার

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগরে অবস্থিত করোনা আক্রান্ত রোগীদের আইসোলেশন সেন্টারে চিকিৎসা দিতে গিয়ে ডাঃ হামিদা আক্তার নিজেই আজ করোনায় আক্রান্ত। করোনা আক্রান্ত ‘ডাঃ হামিদা আক্তার’-র ফেসবুক টাইমলাইন থেকে নেয়া–

“সবাই বলছে কাউকে বলো না।
কেন বলব না??আমি তো কোনো দোষ করি নাই।আমি আপনাদের সেবা করতে গিয়ে আক্রান্ত হয়েছি।লকডাউনে যখন আপনারা বাড়িতে বসে সময় কিভাবে কাটাবেন তা নিয়ে দুশ্চিতাগ্রস্হ ছিলেন তখন আমি হয়তো কোনো কোভিড ১৯ পজিটিভ ব্যাক্তির পাশে দাড়িয়ে ।হ্যা আমি কোভিড ১৯ পজিটিভ।এতে আমার কোনো লজ্জা বা ভয় বা আফসোস নাই।বরং আমি খুব গর্বিত।কারণ আমি শেষদিন পর্যন্ত কাজ করে এসেছি।এখন যদি মরেও যাই আমার আফসোস থাকবে না।কারণ আমি ডাক্তার হিসেবে যে শপথ নিয়েছিলাম তা পালন করে এসেছি।আমি যতদিন পেরেছি আপনাদের জন্যে হাসপাতালে এবং মাঠে কাজ করেছি।যেদিন আমার মনে হল আমার নিজেরই স্যাম্পল পাঠানো দরকার,আমি সাথে সাথে স্যাম্পল পাঠিয়ে নিজেকে কোয়ারান্টাইনড করেছি।আমার পক্ষে যতদুর সম্ভব মানুষ এড়িয়ে চলেছি।নিজের বাড়িতেও ফিরিনি যহেতু আমারো পরিবার আছে,বাড়িতে বৃদ্ধ শ্বশুর শ্বাশুড়ি আছেন।তারপরো আজ আমার এলাকার মানুষের কাছে(যে এলাকায় ভাড়া থাকি)যে ব্যবহার পেয়েছি আমি ও আমার স্বামী তা আমি কোনোদিন ভুলব না।
একটা কথা বলে যাই…নগর পুড়লে কি দেবালয় এড়ায়?????

আগামী বছর বেঁচে থাকলে এই স্মৃতি টা ভেসে উঠবে ফেসবুকের পাতায়।

উল্লেখ্য ডা. হামিদা আক্তার অত্যন্ত মেধাবী একজন তরুণ চিকিৎসক। তিনি কুমিল্লা মেডিকেল কলেজে থেকে বের হয়েছেন। পরবর্তীতে বিসিএস ক্যাডার হিসেবে সরকারি চাকরিতে যুক্ত হন এবং বর্তমানে বিজয়নগর উপজেলায় মেডিকেল অফিসার হিসেবে কর্মরত আছেন।বর্তমানে ডাঃ হামিদা আক্তার এবং স্বামী নগরীর এস.কে হাসপাতালে কোভিড-19 চিকিৎসাধীন আছেন।

ডাক্তার হামিদা আক্তার সেঁওতি আপনি আবার ফিরে আসবেন বীরের মতো। আপনি একজন সাহসী বীর, স্যালুট আপনাকে শতকোটি।মহান আল্লাহপাক এই ডাক্তার দম্পতিকে সুস্থ করে তুলুন। আমিন…

Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Related Articles