মার্কেট খুলে দেবেন যে যে কারণে

যারা মার্কেট বন্ধ রাখার পক্ষে তারা কি দোকানদারদের পরিবারের এক মাসের খাবারের দায়িত্ব নিতে পারবেন?
তারা কি দোকান ভাড়া ও দোকানদারদের বাসা ভাড়া বিদ্যুৎ সহ অন্যান্য বিল ও খরচ দিতে রাজী আছেন?
যাদের ক্রেতা হিসেবে মার্কেটে যাওয়া খুবই জরুরি তাদের প্রয়োজন আপনি মেটাতে পারবেন?
আপনি কিছুই পারবেন না। আপনি পারবেন শুধু নেগেটিভ পোস্ট ও কমেন্ট করতে। আপনার ধারনা মার্কেটে শুধু কাপড় চোপড় ও সৌখিন আইটেম কিনতে মানুষ যায়? অনেক সময় এই কাপড় ইমার্জেন্সি হয়ে পড়ে। বিশেষ করে বাচ্চাদের কাপড় ২/৩ মাস পর পর গায়ে লাগে না। যেহেতু তাদের বাড়ন্ত শরীর। তাদের কী অবস্থা হবে ভেবে দেখেছেন? যাদের বাসায় বাচ্চা আছে তারা হাড়ে হাড়ে টের পাচ্ছেন। লাস্ট এক মাসে যেসব নব জাতকের জন্ম হয়েছে তাদের কোন কাপড়ের ব্যবস্থাই করা যাচ্ছে না৷ মার্কেট বন্ধ কাপড়ের দোকান বন্ধ টেইলারিং শপও বন্ধ।
অনেকে ল্যাপটপ ও পিসির মাধ্যমে অনলাইনে ইনকাম করেন৷ কম্পিউটারের পার্টসের অভাবে ইনকাম বন্ধ। স্কুল গুলো এখন অনলাইনে ক্লাস নিবে বলেছে। পরিচিত স্যার ম্যাডাম হন্যে হয়ে স্মার্ট ফোন খুজতেছেন ক্লাস করানোর জন্য। অনেকের কাছে স্মার্ট ফোন নেই। অনেকের ফোন থাকলেও ডিসপ্লে নস্ট। এভাবে হিসাব করলে কয়দিন আগেও যেটা সৌখিন পণ্য ছিল এখন সেটা নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য হিসেবে গণ্য হচ্ছে। আমার বাসার গ্যাসের চুলাটাও খুব রিস্কি অবস্থায় আছে। ভয় হয় এটা যদি কোন ভাবে…. ভাবতেই ভয় লাগছে।
এছাড়া বাসার দুইটা কল নস্ট। একটা দিয়ে পানি ঠিকমতো পড়ছে না। আরেকটা পুরোই নস্ট। এছাড়া আমার অফিসের পানির টাংকি এখন বন্ধ। অফিসের টয়লেটে যেতে পারছি না। পাইকারি মার্কেট না খুললে এসব আইটেম এলাকার দোকানে আসবে না। আগে যা ছিল সব শেষ হয়ে গেছে। এরকম হাজার হাজার প্রোডাক্ট আছে যার সাথে মার্কেট খোলা জরুরি।

এখন বলতে পারেন জান বাঁচানো তার চেয়ে বেশি জরুরি।
যারা এখন মার্কেটে যাবেন তারা জেনে শুনেই যাবেন।
যারা এখন দোকান খুলবেন তারা জেনে শুনেই দোকান খুলবেন।

তবে বেশ কিছু মার্কেট না খোলার সিদ্ধান্ত আমার কাছে হঠকারী সিদ্ধান্ত মনে হল। অথচ এসব মার্কেট চাইলে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখেই চালাতে পারত। এখন যেমন ব্যাংকে কড়াভাবে মানাতে বাধ্য করা হচ্ছে ঠিক সেভাবে মার্কেটেও এর বাস্তবায়ন করা যেত।

আমি আগেও বলেছি আবার এখনো বলছি এদেশে মানুষ করোনায় যতজন মারা যাবে তার চেয়ে একশ গুণ বেশি মারা যাবে না খেয়ে। আমরা গত দুই মাসে অনেক ভুল করেছি। এই ভুল আর কন্টিনিউ করা উচিৎ না।

ফখরুল ইসলাম, ব্লগার

Facebook Comments

Related Articles