‘বেশি পজেটিভ রেজাল্ট আসছে বলেই কি ল্যাবে পরীক্ষা বন্ধ করে দিতে হবে’ প্রশ্ন প্রতিমন্ত্রীর

যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ল্যাবে করোনাভাইরাস পরীক্ষা নিয়ে স্বাস্থ্য বিভাগের স্থানীয় কর্মকর্তাদের আপত্তি আমলে নেননি স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য।

শুক্রবার দুপুরে যশোর সার্কিট হাউসে ‘কোভিড-১৯ প্রতিরোধ সংক্রান্ত’ মতবিনিময় সভায় যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ল্যাবে পরীক্ষা নিয়ে সিভিল সার্জনসহ বেশ কয়েকজন আপত্তি তোলেন।ওই ল্যাবে নমুনা পরীক্ষায় ‘সঠিক ফলাফল পাওয়া যাচ্ছে না’ দাবি করে সেখানে পরীক্ষা বন্ধ করে দেওয়া উচিত বলে মত দেন তারা।

যশোর জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শফিউল আরিফের সভাপতিত্বে সভায় প্রতিমন্ত্রী স্বপন ছাড়াও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব আসাদুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন। পরীক্ষা বন্ধের দাবির পেছনে যুক্তি হিসেবে ওই ল্যাবে ‘বেশি পজিটিভ’ রেজাল্ট আসার কথা কেউ কেউ বলেছেন বলে জানান জেলা প্রশাসক।

যশোরের সন্তান প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য সেখানেই স্বাস্থ্য বিভাগের স্থানীয় কর্মকর্তাদের বক্তব্যের প্রতিবাদ জানান।
পরে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি ফোনে একটি গণমাধ্যমকে বলেন, “সরকারের পলিসি হল- আরও বেশি পরীক্ষা করা, ল্যাব বন্ধ করা নয়। সভায় আমি বলেছি, যবিপ্রবি ল্যাবে অথবা পরীক্ষার প্রক্রিয়ায় যদি কোনো ফল্ট থাকে, তাহলে তা যাচাই করা যেতে পারে।”

“বেশি বেশি পজেটিভ রেজাল্ট আসছে বলেই কি ল্যাবে পরীক্ষা বন্ধ করে দিতে হবে?,” প্রশ্ন করেন তিনি।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, “স্বাস্থ্য সচিব বিষয়টি শুনেছেন। আমার মনে হয় উনি দুই-একদিনের মধ্যে যশোরে বিশেষজ্ঞ টিম পাঠাবেন। যদিও করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে বিশেষজ্ঞ সঙ্কট রয়েছে বলে সচিব জানিয়েছেন।”

সভায় কে কে যবিপ্রবি ল্যাবে করোনাভাইরাস পরীক্ষা নিয়ে আপত্তি জানিয়েছেন জানতে চাইলে যশোরের সিভিল সার্জন ডা. শেখ আবু শাহীন বলেন, তিনি ছাড়াও বিএমএ সেক্রেটারি ডা. এম এ বাশার আপত্তি তুলেছেন। স্বাস্থ্য সচিব বিষয়টি দেখবেন বলে জানিয়েছেন।

সূত্রঃ বিডিনিউজ

Facebook Comments

Related Articles