হোয়াইট হাউসে করোনার হানা

মার্কিন প্রেসিডেন্টের আবাসন ও দপ্তর হোয়াইট হাউসে এবার করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়েছে। হোয়াইট হাউসের দুজন কর্মীর শরীরে করোনাভাইরাস পজিটিভ শনাক্ত হয়েছে বলে জানা গেছে।

প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের একজন ব্যক্তিগত সহকারীর শরীরে ৮ মে করোনাভাইরাসের লক্ষণ দেখা যায়। যদিও প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প নিজেই জানিয়েছেন, তাঁর সঙ্গে সংক্রমিত কোনো ব্যক্তির সংযোগ ঘটেনি। এর পর হোয়াইট হাউসে ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্সের প্রেস সেক্রেটারি কেটি মিলারের শরীরে এই ভাইরাসের উপস্থিতি শনাক্ত হয়। কেটি মিলার হোয়াইট হাউসের উপদেষ্টা স্টিফেন মিলারের স্ত্রী। এ নিয়ে হোয়াইট হাউসে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে।

রিপাবলিকান আইনপ্রণেতাদের সঙ্গে এক বৈঠকে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বলেছেন, এমন সংক্রমণ যেকোনো জায়গায় ঘটতে পারে। আগে কেউ এমনটি দেখেনি।

হোয়াইট হাউসের চিফ অব স্টাফ মার্ক মেডৌস জানিয়েছেন, হোয়াইট হাউসের জন্য অতিরিক্ত কিছু পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। সংক্রমণ থেকে বাঁচার জন্য অতিরিক্ত পদক্ষেপের বিষয়ে তিনি বিস্তারিত কিছু জানাননি। এদিকে ৮ মে হোয়াইট হাউসে রিপাবলিকান দলের আইণপ্রণেতারা মাস্ক ছাড়াই সভা করেছেন। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পও সাবেক মার্কিন সৈনিকদের এক অভিবাদন অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছেন। সেখানে তাঁকেও মাস্ক পরতে দেখা যায়নি।

সারা বিশ্বের মধ্যে আমেরিকায় করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়ে এ পর্যন্ত বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে। সারা বিশ্বের প্রায় তিন লাখ মানুষের মধ্যে আমেরিকাতেই নিশ্চিত করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়ে ৭৮ হাজারের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে। করোনা সন্দেহে বা হিসেবের বাইরে অনেক মৃত্যুর ঘটনা থেকে গেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

সূত্রঃ প্রথম আলো

Facebook Comments

Related Articles