তিন ঘণ্টা হাসপাতালে ঘুরে মারা গেল ছেলে, খবর শুনে বাবারও মৃত্যু

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে ছেলের মৃত্যু হয়েছে শুনে হার্ট অ্যাটাকে মারা গেছেন বাবাও। করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে ছেলে রিমন সাউদ (২৪) মারা যাওয়ার খবর শুনে হার্ট অ্যাটাক করেন বাবা ইয়ার হোসেন (৬০)। ছেলের মৃত্যুর এক ঘণ্টা পর বাবাকেও মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক।

সিদ্ধিরগঞ্জের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের সিদ্ধিরগঞ্জ সরদারপাড়া এলাকায় সোমবার (১১ মে) সকালে এ ঘটনা ঘটে। এতে শোকের ছায়া নেমে আসে পুরো এলাকায়। মৃত রিমন সাউদের করোনার উপসর্গ জ্বর, কাশি ও শ্বাসকষ্ট থাকায় নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। তবে এখনও তার রিপোর্ট পায়নি পরিবার।

রিমন সাউদের চাচাতো ভাই মাসুম সাউদ বলেন, রোববার রাত ৩টার দিকে দিকে অসুস্থবোধ করলে রিমন সাউদ নিজ বাড়ির দোতলা থেকে নেমে গাড়িতে ওঠে। পরে তাকে ঢাকার বিভিন্ন হাসপাতালে নিয়ে যাই। কিন্তু করোনার উপসর্গ জ্বর, কাশি ও শ্বাসকষ্ট থাকায় কোনো হাসপাতাল ভর্তি নেয়নি তাকে। অবশেষে আমরা ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে ভোর ৬টার দিকে সেখানেই তার মৃত্যু হয়।

তিনি বলেন, ছেলের মৃত্যুার শোক সইতে না পেরে হার্ট অ্যাটাক করেন আমার চাচা ইয়ার হোসেন। তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে ভোর ৭টার দিকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক। আমার চাচা সিদ্ধিরগঞ্জের সরদারপাড়া মসজিদ কমিটির সভাপতি ছিলেন।

Facebook Comments

Related Articles