মা-বাবাকে দেখার অপেক্ষায় একশ নবজাতক, ভিলেন করোনা

ইউক্রেনে সারোগেসি বা গর্ভ ভাড়া নিয়ে জন্ম হওয়া প্রায় একশ শিশুর ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিতে সরকারের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছে সে দেশের মানবাধিকারকর্মীরা।

করোনাভাইরাসের কারণে ইউক্রেনের সীমান্ত বন্ধ হয়ে যাওয়ার কারণে সন্তান জন্ম দিয়ে বিপাকে পড়েছে সারোগেট মায়েরা। অন্যদিকে ওইসব সন্তানের বিদেশি মা-বাবারা তাদের কাছে যেতে পারছে না সীমান্তে কড়াকড়ির কারণে।

করোনাভাইরাসের জেরে দীর্ঘদিন সীমান্ত বন্ধ থাকলে নবজাতকদের কাছে পৌঁছাতে অনেক বিলম্ব হয়ে যাবে বিদেশি এসব দম্পতির।

ইউক্রেনের মানবাধিকারকর্মী লিউডমিলা ডেনিসোভা বলেন, বর্তমানে অন্তত একশ সারোগেট শিশু বিভিন্ন ক্লিনিকে রয়েছে। তারা সবাই তাদের বাবা-মায়ের অপেক্ষায় রয়েছে। যদি লকডাউন বাড়ানো হয়, তাহলে এই সংখ্যা হাজার ছাড়িয়ে যাবে।

সে দেশের সারোগেসি করানোর একটি প্রতিষ্ঠান সম্প্রতি জানিয়েছে, তাদের ক্লিনিকে নবজাতক এসব শিশুর সংখ্যা বেড়ে যাচ্ছে। বায়োটেক্সকমে অন্তত ৫১ নবজাতক রয়েছে। যাদের বাবা-মা দেশের বাইরে রয়েছেন। অন্তত ২২ মের আগে সীমান্ত পেরিয়ে তারা ইউক্রেনে ঢুকতে পারবেন না।

জানা গেছে, এসব শিশুদের বাবা-মা ১২ টি দেশের নাগরিক। চীন, যুক্তরাষ্ট্র, ইতালি, স্পেন, ব্রিটেন, ফ্রান্স, জার্মানি, বুলগেরিয়া, অস্ট্রিয়া, মেক্সিকো এবং পর্তুগাল।

সূত্র : এপি

Facebook Comments

Related Articles