মাইক্রোসফট টিমস: ঘরে বসেই পড়াশোনা

২০২০ সালে শুরুতেই করোনাভাইরাসের ভয়াল থাবায় একের পর এক লকডাউন হতে থাকে বিশ্বের বহু দেশ। গৃহবন্দী হয়ে পড়ে মানুষ। ফলে পাল্লা দিয়ে বাড়তে থাকে মাইক্রোসফট টিমসের ব্যবহার। চলতি বছরের মার্চ মাসে এসে প্রতিদিন মাইক্রোসফট টিমস ব্যবহারকারীর সংখ্যা দাঁড়ায় ৪৪ মিলিয়নে

করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) প্রাদুর্ভাবে সারা বিশ্বের মানুষ যখন গৃহবন্দী, তখন এই গৃহবন্দী মানুষকে ভার্চুয়ালি সংযুক্ত করার জন্য রয়েছে নানা রকমের অনলাইন প্ল্যাটফর্ম। তার মধ্যে অন্যতম একটি প্লাটফর্ম হলো “মাইক্রোসফট টিমস”। যার মাধ্যমে রয়েছে অনলাইন মিটিং, চ্যাটিং, ফাইল শেয়ারিং, অনলাইন স্টোরেজসহ রয়েছে নানান সুবিধা। বিশেষ করে শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা ঘরে বসেই অ্যাকাডেমিক কার্যক্রম পরিচালনা করতে পারবে।

মাইক্রোসফট টিমসের খুঁটিনাটি

২০১৭ সালে মে মাসের শুরুতেই মাইক্রোসফট বাজারে আনে মাইক্রোসফট টিমস একটি সার্ভিস যার পূর্ববর্তী নাম ছিল মাইক্রোসফট ক্লাসরুম বা অফিস ৩৬৫ ফর এডুকেশন। ২০১৮ সালে এসে তারা সীমিত সংখ্যক ব্যবহারকারীর জন্য মাইক্রোসফট টিমস সার্ভিসটির একটি ফ্রি ভার্সন বাজারে আনে। পরবর্তীতে ২০১৯ সালের গোড়ার দিকে সার্ভিসটি আরও আপডেট করে প্রান্তিক ব্যবহারকারীদের জন্য উন্মুক্ত করে দেয়। ওই বছরেই মাইক্রোসফট টিমসের ব্যবহারকারীর সংখ্যা দাঁড়ায় ২০ মিলিয়নে।

২০২০ সালে শুরুতেই করোনাভাইরাসের ভয়াল থাবায় একের পর এক লকডাউন হতে থাকে বিশ্বের বহু দেশ। গৃহবন্দী হয়ে পড়ে মানুষ। ফলে পাল্লা দিয়ে বাড়তে থাকে মাইক্রোসফট টিমসের ব্যবহার। চলতি বছরের মার্চ মাসে এসে প্রতিদিন মাইক্রোসফট টিমস ব্যবহারকারীর সংখ্যা দাঁড়ায় ৪৪ মিলিয়নে।

কি কি ফিচার আছে এতে?

টিমস: টিম হচ্ছে একটি দল। যেই দলের একজন লিডার বা অ্যাডমিন থাকে। সেই অ্যাডমিন তার দলের সাথে যোগাযোগ করার জন্য একটি আমন্ত্রণ পত্র পাঠায় যেটাকে বলা হয় URL (Uniform Resource Locator)। এই আমন্ত্রণ পত্র গ্রহণের মাধ্যেমে দলের সদস্যরা টিমের অ্যাডমিনের তত্ত্বাবধায়নে আলোচনায় অংশ গ্রহণ করতে পারেন। এভাবেই একজন শিক্ষক টিমের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের সাথে ক্লাস পরিচালনা করতে পারেন যাকে সংক্ষেপে বলা হয় (PLCs) Professional Learning Communities।

চ্যানেলস: এটি টিমস এর অভ্যন্তরীণ একটি সার্ভিস। এই সার্ভিসের মাধ্যমে টিমের মেম্বাররা চ্যানেল তৈরির মাধ্যমে নিজেদের সাথে টেক্সট, ছবি, অ্যানিমেশন ইত্যাদি আদান-প্রদান করতে পারবেন।

মিটিং: এটা টিমের একটি সিডিউল সার্ভিস। প্রতিদিন কিংবা সপ্তাহে একদিন এ রকম প্রয়োজন অনুসারে মিটিং কল করা যায়।

এডুকেশন: এডুকেশন যাকে আমরা বাংলায় বলি শিক্ষা। এই সার্ভিসটি মূলত একজন শিক্ষক তার শিক্ষার্থীদের জন্য ক্লাস নোট, অ্যাসাইনমেন্ট প্রদানের মাধ্যমে গ্রেডিং বা মূল্যায়ন করাসহ শিক্ষার্থীদের ফিডব্যাক নিতে পারবেন।

বাংলাদেশে মাইক্রোসফট টিমসের ব্যবহার

বাংলাদেশে অনেক সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের রয়েছে মাইক্রোসফট টিমের ব্যবহার। তার মধ্যে অন্যতম আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি-বাংলাদেশ। বিশ্ববিদ্যালয়টি ৬৫০ জন শিক্ষকের তত্ত্বাবধায়নে ১১ হাজার শিক্ষার্থীর জন্য একটি পূর্ণাঙ্গ এডুকেশন প্ল্যাটফর্ম তৈরি করে শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে। যার মাধ্যেমে এখন পর্যন্ত দুই লাখেরও বেশি চ্যানেল মেসেজ, সাড়ে চার লাখ চ্যাট মেসেজ, দুই হাজারের বেশি মিটিং পরিচালনা করা হয়েছে। তাছাড়া সাড়ে ৯ হাজার মিটিং এ অংশগ্রহণকারী, প্রায় তের হাজার সিঙ্গেল কল ও প্রায় দশ হাজার গ্রুপ কল করা হয়েছে।


সামিউল হক সুমন, নেটওয়ার্ক ইঞ্জিনিয়ার, আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি-বাংলাদেশ


প্রকাশিত মতামত লেখকের একান্তই নিজস্ব। প্রকাশিত লেখার জন্য এই সময় ৩৬৫ কোনো ধরনের দায় নেবে না।

Facebook Comments

Related Articles