নিজেদের বাজেটে কেন নিজেদের হাসপাতাল বানাচ্ছেন না ডাক্তার সমাজ?

কথাটা শুনতে শ্রুতিমধুর হলো না। নিজেদের বাজেটে কেন, আমরা হাসপাতাল বানাবো? যে দেশের জন্য জানপ্রাণ বাজি রেখে সেবা দিয়ে যাচ্ছি, সে দেশ কেন আমাদের জন্য হাসপাতাল তৈরি করে দিবে না? আমরা কি ইয়াতিম? এসব প্রশ্ন নিশ্চয়ই আপনাদের মনে উকি দিচ্ছে।

কিন্তু সামান্য অক্সিজেনের অভাবে বা আইসিউয়ের অভাবে অথবা এয়ার এম্বুলেন্সের অভাবে যখন প্রফেসর লেভেলের অনেক ডাক্তার ইন্তেকাল করেছেন, তখন এসব প্রশ্ন মাথায় না এনে সম্ভাবনার কথা মাথায় আনেন৷ কি কি কাজ নিজেরাই করে রাখতে পারতেন সেসব মাথায় আনেন।

বাংলাদেশে প্রায় ১ লাখ ডাক্তার আছেন। এবং যতই মাস্ক করার চেষ্টা করেন বৈধভাবে অঢেল হালাল ইনকামের সুযোগ এদেশে ডাক্তারি ছাড়া সম্ভব না। এখানেও আপনার মনে আবার খটকা লাগলো। আপনার কথা, সব ডাক্তারতো আর অঢেল টাকা আয় করেন না। আমিও আপনার সাথে একমত। জুনিয়র ও মিড লেভেলের ডাক্তাররা অনেকেই দিন আনে দিন খায়।

আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি, এই ১ লাখ ডাক্তারের মধ্যে ৫ হাজার ডাক্তার আছেন যারা তাদের ৫ দিনের ইনকাম যদি একত্রিত করতেন তাহলে সেই টাকা দিয়ে ডাক্তারদের জন্য একটা অত্যাধুনিক হাসপাতাল বানানো সম্ভব। বিশ্বাস না করলে হিসেব করে দেখুন।

করোনায় এখন পর্যন্ত প্রায় ১০০০ ডাক্তার আক্রান্ত হয়েছেন। এদের মধ্যে ২০ জন ডাক্তার করোনায় মৃত্যুবরণ করেছেন। দেখলাম এই ২০ জনের মধ্যে ১২ জনই প্রফেসর লেভেলের ডাক্তার। বাকি মৃত ডাক্তারদের অধিকাংশই বয়োবৃদ্ধ। সামনে আল্লাহ না করুক যারা মারা যাবেন তারা অধিকাংশই সিনিয়র ডাক্তারই হবেন।

সিনিয়র ডাক্তারগণ, করোনা থেকে শিক্ষা নিন। আত্মকেন্দ্রিক হবেন না আর। আপনাদের এই আত্মকেন্দ্রিকতার জন্যই আজ ডাক্তারগণ করোনা যুদ্ধে প্রাণ হারাচ্ছে৷ আপনাদের সক্ষমতা আছে নিজেদের খরচে একটা অত্যাধুনিক হাসপাতাল বানানোর। সেই হাসপাতালে সেবা নিবেন সকল পর্যায়ের ডাক্তার৷ আশা করি, এই স্বপ্ন আপনাদের হাত ধরেই বাস্তবায়িত হবে।

লেখাঃ জনৈক চিকিৎসক।

Facebook Comments

Related Articles