ফেসবুকে সাংসদ এনামুলের দ্বিতীয় স্ত্রী দাবি করার নারীর বিরুদ্ধে মামলা

রাজশাহী-৪ (বাগমারা) আসনের সাংসদ এনামুল হকের দ্বিতীয় স্ত্রী দাবি করে ফেসবুকে প্রচারণা চালানো আয়েশা আক্তারের (৩০) বিরুদ্ধে মামলায় হয়েছে। সাংসদের সহকারী একান্ত সচিব (এপিএস) ও বাগমারা উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান শুক্রবার মামলাটি করেন।

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের এ মামলায় এক কোটি টাকা চাঁদা দাবি ও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে অপপ্রচারের অভিযোগ আনা হয়। এর আগে ওই নারী তাঁকে মামলায় ফাঁসানো হতে পারে বলে আশঙ্কা করে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছিলেন।

মামলায় অভিযোগ করা হয়েছে, সাংসদ এনামুল হকের কাছ থেকে ঋণের এক কোটি টাকা পরিশোধের জন্য চাঁদা দাবি করেন আয়েশা আক্তার। চাঁদার টাকা না দিলে তাঁর বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে মিথ্যা প্রচারণা চালাবেন বলেও হুমকি দিয়েছিলেন। চাঁদা না দেওয়ায় সাংসদের বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালানো হয়েছে। এতে সাংসদের মানহানি হয়েছে।

মামলার বিষয়ে জানতে চাইলে বাগমারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আতাউর রহমান এই প্রতিবেদকের কাছে উল্টো জানতে চান, ‘কীভাবে এই গোপনীয় বিষয়টি জানলেন।’ বাদীও মামলার বিষয়ে কিছুই বলতে চাননি। তবে পুলিশের একটি দল আসামিকে গ্রেপ্তারে নগরের বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালাচ্ছে বলে পুলিশের জেলা পর্যায়ের এক কর্মকর্তা নিশ্চিত করেছেন।

আয়েশা আক্তার নামের ওই নারী রাজশাহী নগরের তেরখাদিয়া এলাকার বাসিন্দা। তিনি এক সপ্তাহ আগে ‘লিজা আয়েশা’ নামের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে নিজেকে বাগমারার সাংসদ এনামুল হকের দ্বিতীয় স্ত্রী দাবি করে একটি লেখা প্রকাশ করেন। সেখানে তিনি দাবি করেন, বিয়ের সপক্ষে যথেষ্ট প্রমাণ তাঁর কাছে রয়েছে। ফেসবুক লাইভে এসে সবকিছু প্রকাশ করবেন বলেও ঘোষণা দিয়েছিলেন ওই নারী।

Facebook Comments

Related Articles