নিউজের হেডলাইন দেখে ক্ষেপলেন মাশরাফি

“স্ত্রীকে রাস্তায় ফেলে গেলেন স্বামী, কাছে টেনে নিলেন মাশরাফি” শিরোনামে একাধিক অনলাইন পত্রিকায় নিউজ প্রকাশিত হয় গতকাল। আজ মাশরাফি একটি নিউজ পোর্টালের নিউজের হেডলাইনের স্ক্রিনশট পোস্ট করে তার ভ্যারিফাইড পেজ থেকে লিখেন,

“What a headline.
journalism at his best. যারা বছরের পর বছর এই পেশাটাকে শুধু পেশা হিসাবেই না সর্বচ্চো সম্মানের সাথে করে আসছেন উনারাও এসব দেখে লজ্জা পান, মনে হয়।”

উল্লেখ্য, গত ১ জুন অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী ইতি খানমকে নির্যাতন করে রাস্তায় ফেলে যান স্বামী তিতাস কাজি। অচেতন হয়ে রাস্তায় পড়েছিলেন ইতি। পরে জাতীয় জরুরি সেবার ৯৯৯ নম্বরে ফোন দিয়ে বিষয়টি জানায় স্থানীয় লোকজন। খবর পেয়ে তাকে উদ্ধার করে লোহাগড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে পুলিশ। এরপর থেকে স্বামী, শ্বশুরবাড়ি কিংবা বাবারবাড়ির কেউ খোঁজখবর নেয়নি ইতির।

এরপর নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজার নির্দেশনায় অবশেষে স্বামীর বাড়িতে ইতির জায়গা হলো। ইতি খানম (২০) উপজেলার ইতনা গ্রামের কাজি হারুন অর রশিদের মেয়ে এবং একই গ্রামের বাসিন্দা তিতাস কাজির স্ত্রী।

লোহাগড়া থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সৈয়দ আশিকুর রহমান জানান, ইতি আট মাসের অন্তঃসত্ত্বা। তাকে একজন চৌকিদার (নারী) দেখভাল করবেন। আরেকজন চৌকিদার (পুরুষ) তার খোঁজখবর রাখবেন। পুলিশ তাকে কিছু খাদ্যসামগ্রী দিয়েছে। স্থানীয় চেয়ারম্যান আপাতত তার বাজার খরচ দেবেন। এমপি মাশরাফি বিন মর্তুজা ইতির খোঁজখবর রাখবেন এবং পাশে আছেন। তার কোনো খাদ্যসহায়তা লাগলে এমপি দেবেন বলেছেন। এছাড়া যেকোনো বিপদে ইতির পাশে থাকার আশ্বাস দিয়েছেন তিনি। একই সঙ্গে ইতির সন্তান প্রসবের সময়ের সব খরচ বহন করবেন এমপি মাশরাফি।

এরই প্রেক্ষাপটে একাধিক অনলাইন পত্রিকায় অতি রঞ্জিত হেডলাইনের নিউজ প্রকাশিত হয়৷

Facebook Comments

Related Articles