চীনে ভ্যাকসিন তৈরি হলে প্রথমে পাবে বাংলাদেশ।

চীন বাংলাদেশকে জানিয়েছে যদি তারা সফলতার সাথে করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে ভ‍্যাকসিন আবিস্কার করতে পারে তবে সাহায্য সহযোগিতার দিক থেকে বাংলাদেশ সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার পাবে।

ঢাকায় চাইনিজ এমব্যাসির ডেপুটি চিফ অব মিশন হুয়ালং ইয়ান ইউএনবিকে জানান,
“অবশ‍্যই বাংলাদেশ আমাদের অনেক গুরুত্বপূর্ণ ও কাছের বন্ধু এবং বাংলাদেশ নি‍‍শ্চিতভাবে অগ্রাধিকার পাবে।”

তিনি আরও বলেন এই করোনা মহামারির মধ্যবর্তী সময়ে বাংলাদেশ ও চীনের সম্মিলিতভাবে কাজ করা উচিত।

তিনি আরও জানান, পাঁচটি চাইনিজ কোম্পানি করোনা ভাইরাসের ভ‍্যাকসিন আবিষ্কারের জন্য কাজ করছে।

এদিকে,ইন্সটিটিউট অফ মেডিকেল বায়োলজির অধীনে কর্মরত চাইনিজ একাডেমি অফ মেডিকেল সাইন্স এর উদ্ভাবিত নিষ্ক্রিয় কোভিড-১৯ ভ‍্যাকসিনের একটি নমুনার পরীক্ষামূলক ট্রায়াল ফেজ-২ তে প্রবেশ করেছে।

ইয়ুনানের দক্ষিণ প‍শ্চিম ‍প্রদেশে করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিনের ফেজ-২ ট্রায়াল পরিচালিত হচ্ছে।
ফেজ-২ এর পরীক্ষামূলক ট্রায়ালে মূলত অধিকতরভাবে মূল্যায়ন করা হয় মানুষের মধ্যে
ভ‍্যাকসিনটির অনাক্রম‍্যতা এবং এটি মানুষের জন্য কতটা নিরাপদ।

সিনহুয়ার প্রতিবেদন অনুযায়ী এখন পর্যন্ত চীনের মিনিসট্রি অফ সাইন্স এন্ড টেকনোলজি ৫টি কোভিড-১৯ ভ‍্যাকসিনের নমুনা পরীক্ষামূলকভাবে গবেষণা করার জন্য অনুমোদন দিয়েছে যা কিনা সারাবিশ্বে পরিচালিত কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনের পরীক্ষামূলক ট্রায়ালের প্রায় ৪০ শতাংশ।

চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং ২০মে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে এ বিষয়ে ফোনে কথা বলেন।
কোভিড-১৯ মহামারীর বিরুদ্ধে বাংলাদেশের লড়াইয়ের এই দুঃসময়ে চীন সবসময় বাংলাদেশের পাশে থাকবে বলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আশ্বাস দেন প্রেসিডেণ্ট শি জিনপিং।

Facebook Comments

Related Articles