‘সাবরিনার আবেদনময়ী ছবি পোস্ট না করে, তার অপরাধের নথি পোস্ট করুন’

একজন ব্যক্তি সাবরিনা এই দেশ এবং জাতির কাছে নিতান্তই নগন্য একটি অস্তিত্ব। কিন্তু যে অপরাধের সাথে তার নাম আসছে তা বৃহৎ এবং ক্ষমার অযগ্য। ব্যাক্তি জীবনে তিনি কিভাবে চলতেন, কিভাবে ড্রেস-আপ করতেন, কিভাবে ফেইসবুকে পোজ দিয়ে তিনি ছবি তুলতেন সেগুলো নিয়ে টানাটানি না করে, তার দ্বারা সংঘটিত অপরাধের দিকে তাকান। জীবনে কী তিনি নাইকা হতে চেয়েছিলেন, নাকি মডেল সেগুলো ঘেঁটে পানি ঘোলা করে কোন লাভ নাই।

দয়া করে একটু বস্তুনিষ্ঠ হোন। প্রশ্ন তুলুন জোর গলায়; দাবী তুলুন সুষ্ঠু বিচারের। এই ভয়ংকর মহামারীতে যেখানে মানুষের জীবন বিপন্ন, মানুষ চাকুরী হারাচ্ছে, মারা যাচ্ছে না খেয়ে বিনা চিকিৎসায়। অসুস্থ রোগীর চিকিৎসা করতে গিয়ে মারা যাচ্ছে চিকিৎসক এবং নার্সরা নিয়মিত, সেখানে ডাঃ সাবরিনা করোনার ভূয়া সার্টিফিকেট তৈরী করে হাতিয়ে নিচ্ছেন কারিকারি টাকা!

সোস্যাল মিডিয়াতে সাবরিনার আবেদনময়ী ছবি পোস্ট না করে, তার অপরাধের নথি পোস্ট করুন। বিজ্ঞাপন, পেপার কাটিং, অফিসিয়াল চিঠি, ভিডিও ক্লিপ অথবা যে কোন ধরনের ডকুমেন্ট যেটা প্রমান করে যে অপরাধ সংঘটনের সময় তিনি জেকেজির চেয়ারম্যান ছিলেন; আথবা তিনি ঐ গ্রুপের সাথে ওতপ্রোতভাবে জড়িত ছিলেন। ঐসব ডকুমেন্টের ছবি তুলে জনগনকে জানতে দিন তার কৃতকর্ম। সকল ডকুমেন্ট জমা দিন পুলিশের কাছে।

এতে তার অপরাধের সাজা হবে। তার অপরাধ যদি সত্যিই হয়, তিনি কলংকিত করেছেন গোটা চিকিৎসক সমাজকে, আর বিশ্বাসঘাতকতা করেছেন জাতির সাথে। জাতি হিসেবে দু্র্নীতির কলংক আমাদের আছে। কিন্তু এই দুর্যোগের দিনেও দুর্নীতি? এটা অমানবিক।

‘একজন ডাঃ সাবরিনা ও আমরা’

লেখাঃ খন্দকার মেহেদী আকরাম সিনিয়র রিসার্চ এসোসিয়েট, দ্যা ইউনিভার্সিটি অফ শেফিল্ড

Facebook Comments

Related Articles

Close