করোনা পরবর্তী ফুসফুসের জটিলতা

শুক্রবার,৩১ জুলাই,২০২০
করোনা সংক্রমণ পরবর্তী ফুসফুসে যে জটিলতা দেখা যায় তাকে পোস্ট কোভিড পালমোনারি ফাইব্রোসিস বলে। এটিকে ফুসফুসের ‘অপরিবর্তনীয় ক্ষতি’ হিসেবে সংজ্ঞায়িত করা যেতে পারে।
পালমোনারি ফাইব্রোসিস এক ধরণের রোগ যেখানে ফুসফুসের নরম অংশ গুলো নষ্ট হয়ে যায় এবং সেখানে ক্ষতের সৃষ্টি হয়। এতে ফুসফুসের কলাগুলো (টিস্যু) মোটা ও শক্ত হয়ে যায়,ফলে ফুসফুসের বাতাস থলিগুলো ঠিকমত কাজ করতে পারে না।

সামগ্রিকভাবে, করোনা আক্রান্ত প্রায় প্রত্যেকেরই হালকা উপসর্গ থাকে। অনেকে আবার একেবারেই উপসর্গহীন থাকে। তবে, খুব কম মানুষই মারাত্মকভাবে সংক্রমিত হন।

মারাত্মক সংক্রমিতদেরকে হাসপাতালে ভর্তি করার প্রয়োজন হয়। তাদের ভেন্টিলেটরেরও প্রয়োজন হয়।যাদের অক্সিজেন প্রয়োজন হয় তারাই পোস্ট কোভিড ফাইব্রোসিসের শিকার হওয়ার উচ্চ ঝুঁকিতে আছেন।এদের মাঝে ২০ থেকে ৩০ ভাগ রোগীর পালমোনার ফাইব্রোসিস হয়। বেশিরভাগ রোগীর ক্ষেত্রে কাশি ও হালকা শ্বাস প্রশ্বাসের সমস্যা হতে দেখা যায়। তারা সুস্থ হয়ে ওঠেন। তবে একটি নির্দিষ্ট জনগোষ্ঠীর ফুসফুসের অত্যাধিক ক্ষতি হয় এবং তাদের মধ্যে কিছু লোক ফাইব্রোসিস এর শিকার হন।

পালমোনারি ফাইব্রোসিস এর উপসর্গ হতে পারে শ্বাস নিতে কষ্ট হওয়া, শুষ্ক কাশি,বুকে ব্যথা বা চাপ অনুভব করা, খাওয়ার ইচ্ছা কমে যাওয়া,অবসাদ বা ক্লান্তি অনুভব করা,পেশী এবং জয়েন্টগুলোতে ব্যথা ও ধীরে ধীরে হাতের আঙ্গুল বা পায়ের আঙ্গুল মোটা হয়ে যাওয়া।

এরকমও হতে পারে যে পালমোনারি ফাইব্রোসিস রোগের শারীরিক লক্ষণ দেখা না দিলেও তা রোগীর দেহে বিদ্যমান থাকতে পারে।

পালমোনারি ফাইব্রোসিস রোগ শনাক্ত করার জন্য নিম্নোক্ত পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হয়:

বুকের এক্স রে, বুকের কম্পিউটারাইজড সিটি স্ক্যান, ইকোকার্ডিওগ্রাম,পালমোনারি ফাংশন টেস্টিং( ফুসফুস কতটা বায়ু ধরে রাখতে পারে এবং কত দ্রুত বাতাস সরাতে এবং বাইরে যেতে পারে তা পরিমাপ করা) ও পালস অক্সিমেট্রি।

পালমোনারি ফাইব্রোসিস রোগের চিকিৎসা না করলে পালমোনারি হাইপারটেনশন (ফুসফুসের উচ্চ রক্তচাপ), ডান পাশের হৃদয়ের ব্যর্থতা(রাইট হার্ট ফেইলিউর), শ্বাসযন্ত্রের ব্যর্থতা(লাং ফেইলিউর), ফুসফুসের ক্যান্সার ও ঘন ঘন ফুসফুসে সংক্রমণ হয়ে শারীরিক জটিলতা দেখা দিতে পারে।

পালমোনারি ফাইব্রোসিস রোগের চিকিৎসার জন্য নিম্নোক্ত ধাপগুলো অনুসরণ করা হয়:

ফুসফুসের প্রতিস্থাপন: জীবনের মান উন্নত করে এবং আপনাকে দীর্ঘ জীবন বাঁচতে দেয়।

অক্সিজেন থেরাপি: শ্বাস সহজ করে তোলে এবং কম রক্ত অক্সিজেন মাত্রা থেকে জটিলতা প্রতিরোধ করে।

পালমোনারি পুনর্বাসন: উপসর্গগুলি পরিচালনা করুন এবং আপনার দৈনন্দিন কার্যকারিতা উন্নত করুন।

পালমোনারি ফাইব্রোসিস রোগের চিকিৎসা অথবা ব্যবস্থাপনায় জীবনধারায় যেসব পরিবর্তন সহায়ক হতে পারে তা হলো নিয়মিত ফুসফুসের ব্যায়াম করুন ও ধূমপান করবেন না।

লেখক- অধ্যাপক ডাঃ মোহাম্মদ আজিজুর রহমান, বক্ষব্যাধি ও মেডিসিন বিশেষজ্ঞ

আমাদের সাথে যুক্ত থাকুন::
লাইক দিন: https://www.facebook.com/eisomoy365/ (‘এই সময়’ ফেসবুক পেইজ)
সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে: https://youtu.be/ZBMTaqUNbh4

Facebook Comments

Related Articles

Close