দেশে ১৮ জোড়া ট্রেন চালু ২৭ আগস্ট থেকে

আগামী ২৭ আগস্ট থেকে ১৮ জোড়া নতুন ট্রেন চালু করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ রেলওয়ে। বর্তমান পরিস্থিতি বিবেচনায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা হবে বলে জানিয়েছে রেলওয়ে কতৃপক্ষ।

এসব ট্রেনের মধ্যে রয়েছে-চট্রগাম-সিলেট-চট্রগাম রুটের পাহাড়িকা/উদয়ন, ঢাকা-কিশোরগঞ্জ-ঢাকার এগার সিন্দুর প্রভাতী, ঢাকা-তারাকান্দি-ঢাকা রুটের যমুনা এক্সপ্রেস, ঢাকা-কিশোরগঞ্জ-ঢাকার এগার সিন্দুর গোধুলী, চট্রগ্রাম-ঢাকা-চট্রগ্রাম সোনার বাংলা এক্সপ্রেস, চট্রগ্রাম-ঢাকা-চট্রগ্রাম চট্টলা এক্সপ্রেস, সান্তাহার-বুড়িমাড়ি-সান্তাহার করতোয়া এক্সপ্রেস, রাজশাহী-চিলাহাটি-রাজশাহী বরেন্দ্র এক্সপ্রেস, রাজশাহী-ঢাকা-রাজশাহী সিল্কসিটি এক্সপ্রেস, খুলনা রাজশাহী-খুলনা সাগরদাঁড়ী এক্সপ্রেস, সান্তাহার-দিনাজপুর-সান্তাহার দোলনচাঁপা এক্সপ্রেস, ঢালারচর-রাজশাহী-ঢালারচর ঢালারচর এক্সপ্রেস, চট্রগ্রাম-ঢাকা-চট্রগ্রাম ঢাকা/চট্রগ্রাম মেইল, ঢাকা-দেওয়ানগঞ্জ বাজার-ঢাকা দেওয়ানগঞ্জ কমিউটার, ঢাকা-ঝারিয়া ঝাঞ্জাইল-ঢাকা বলাকা কমিউটার, সান্তাহার-লালমনিহাট-সান্তাহার বগুড়া কমিউটার, খুলনা-পার্বতীপুর-খুলনা রকেট এক্সপ্রেস এবং পার্বতীপুর-চিলাহাটি-পার্বতীপুর চিলাহাটি এক্সপেস।

করোনাভাইরাস মহামারীর কারণে গত ২৪ মার্চ থেকে যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এরপর গত ৩১ মে প্রথম দফায় আট জোড়া আন্তঃনগর ট্রেন চালু করার পর ৩ জুন দ্বিতীয় দফায় আরও ১১ জোড়া আন্তঃনগর ট্রেন চালু করা হয়। তবে যাত্রী সংকটে দুই জোড়া ট্রেন চলাচল বন্ধ করে দেয় রেলওয়ে কতৃপক্ষ ।

এদিকে গত ১৬ আগস্ট নতুন করে আরও ১২ জোড়া আন্তঃনগর ও এক জোড়া কমিউটার ট্রেন মোট ১৩ জোড়া ট্রেন চলাচল শুরু করে।

এদিকে রেল কর্তৃপক্ষ আরও জানিয়েছে, আন্তঃনগর ট্রেনের অগ্রিম টিকিট ৫ দিন পূর্বে ইস্যু করা যাবে এবং যাত্রীরা অনলাইনে ও মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে টিকিট নিতে পারবেন।

এদিকে রেলওয়ে কতৃপক্ষ তাদের বিবৃতিতে আরও জানায়, যাত্রীদের নিরাপত্তার দিক বিবেচনা করে কোচের ধারণক্ষমতার শতকরা ৫০ ভাগ টিকিট বিক্রি করা হবে এবং আন্তঃনগর ট্রেনে সকল প্রকার স্ট্যান্ডিং টিকিট বিক্রি বন্ধ থাকবে।

বাংলাদেশ রেল সূত্রের মতে,মোট ৩৫৫ টি রেল এর মধ্যে ১০০ টি যাত্রীবাহী এবং বাকিগুলো মালবাহী। করোনা পরিস্থিতিতে যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল কিছুদিনের জন্য বন্ধ থাকলেও মালবাহী ট্রেনগুলো চলমান ছিল।

বাসস।

Facebook Comments

Related Articles