ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে হামলাকারী ব্রেন্টন ট্যারেন্টের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

শুক্রবার,২৮ আগস্ট,২০২০

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের দুই মসজিদে সন্ত্রাসী হামলায় ৫১ জনকে হত্যার দায়ে প্যারোলবিহীন যাবজ্জীবন কারাদণ্ডে দণ্ডিত হলো অস্ট্রেলিয়ার নাগরিক ব্রেন্টন ট্যারেন্ট।

বৃহস্পতিবার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য উল্লেখ করে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।
রয়টার্স জানায়, নিউজিল্যান্ডের ইতিহাসে এই প্রথম কোনো ব্যক্তিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের সাজা দেওয়া হলো।

ক্রাইস্টচার্চের হাই কোর্টের বিচারক ক্যামেরন মান্ডার বলেন, আসামি ব্রেন্টন ট্যারেন্ট যে অপরাধ করেছেন, তার শাস্তি হিসেবে কোনো নির্দিষ্ট মেয়াদের সাজা যথেষ্ট নয়।
রায় ঘোষণার পর তিনি বলেন, ‘আপনার অপরাধ এতই জঘন্য যে মৃত্যু পর্যন্ত আপনাকে জেলে আটকে রাখা হলেও শাস্তি শেষ হবে না।’
তিনি আরও বলেন, ‘এখন পর্যন্ত আমি যতটুকু দেখছি, এই কৃতকর্মের জন্য আপনার মধ্যে বিন্দুমাত্র অনুশোচনা নেই।’

২০১৯ সালের ১৫ মার্চ জুমার নামাজের সময় দুটি মসজিদে হামলা চালিয়ে ৫১ জনকে হত্যা, ৪০ জনকে হত্যাচেষ্টা ও সন্ত্রাসী হামলার অপরাধে এই কারাদণ্ড পেয়েছেন ২৯ বছর বয়সী অস্ট্রেলিয়ান নাগরিক ট্যারেন্ট।

এই নৃশংস হত্যাকান্ডের দৃশ্য নিজের হেলমেটে লাগানো ক্যামেরার মাধ্যমে ফেসবুকে সরাসরি সম্প্রচার করেছিলেন তিনি।
ক্রাইস্টচার্চের আল নূর ও লিনউড মসজিদের পর তৃতীয় আরেকটি মসজিদেও হামলা চালানোর পরিকল্পনা ছিল তার।

সেদিন দূর্ভাগ্যবশত সেখানে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সদস্যরা।কিন্তু অল্পের জন্য ওই হামলা থেকে বেঁচে গিয়েছিলেন তারা।এই ভয়াবহ হত্যাকান্ড পুরে বিশ্বকে নাড়িয়ে দিয়েছিল।

আল নূর মসজিদের ইমাম গামাল ফুদা বলেন, ‘আজ এই জঘন্য অপরাধের আইনি প্রক্রিয়া শেষ হয়েছে। কোনো শাস্তিই আমাদের প্রিয়জনদের ফিরিয়ে দিতে পারবে না। উগ্রবাদীরা সবাই এক। তারা যেই ধর্ম, জাতীয়তাবাদ বা অন্য কোনো মতাদর্শেরই হোক না কেন সব উগ্রবাদীরাই ঘৃণার প্রতিনিধিত্ব করে।’

এদিকে নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জ্যাসিন্ডা অ্যার্ডান এমন রায়ে স্বস্তি প্রকাশ করেছে।তিনি বলেন, ‘সেই ব্যক্তি কখনো দিনের আলো দেখবেন না।’

নিজস্ব প্রতিবেদক,
হাসিবুর রহমান মুকিত

আমাদের সাথে যুক্ত থাকুন::
লাইক দিন: https://www.facebook.com/eisomoy365/ (‘এই সময়’ ফেসবুক পেইজ)
সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে: https://youtu.be/ZBMTaqUNbh4

Facebook Comments

Related Articles