বাংলাদেশের জলবায়ু অভিযোজন বিশ্বের জন্য অনুকরণীয়ঃ যুক্তরাজ্য

যুক্তরাজ্যের আন্তর্জাতিক পরিবেশমন্ত্রী লর্ড গোল্ডস্মিথ বাংলাদেশের জলবায়ু অভিযোজনকে একটি গুরুত্বপূর্ণ দৃষ্টান্ত হিসেবে উল্লেখ করেছেন। তিনি বলেন বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন উন্নয়নশীল দেশগুলো জলবায়ু পরিবর্তনে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়। তবে বাংলাদেশ যেভাবে খাপ খাইয়ে নিয়েছে তা একটি গুরুত্বপূর্ণ দৃষ্টান্ত তুলে ধরেছে সবার কাছে। তিনি আরও বলেন,জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় যুক্তরাজ্য বাংলাদেশের সাথে কাজ করতে আগ্রহী রয়েছে।

এদিকে যুক্তরাজ্য আগামী বছর ইতালীর সাথে কপ-২৬ নামের একটি সম্মেলন আয়োজন করবে। জাতিসংঘের জলবায়ু বিষয়ক এই সম্মেলনে প্রকৃতিভিত্তিক সমাধানের উপর জোর দেয়া হবে। অন্যদিকে বাংলাদেশ ২০২০-২০২২ মেয়াদে ক্লাইমেট ভালনারেবল ফোরামে এবং অর্থমন্ত্রীদের ভালনারেবল ২০ ফোরামে সভাপতিত্বে রয়েছে।

কিছুদিন আগে হওয়া বন্যায় বাংলাদেশের মানুষ কিভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তার একটি ধারণা নেন গোল্ডস্মিথ। এসময় তিনি প্রকৃতির বিরুদ্ধে না গিয়ে প্রকৃতির সাথে কাজ করার আহবান জানিয়েছেন।
জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে বাংলাদেশ বেশ ঝুকিপূর্ণ অবস্থানে রয়েছে। দেশের ৭০ শতাংশ মানুষ ঘূর্ণিঝড়সহ অন্যান্য প্রাকৃতিক দূর্যোগের হুমকির মুখে রয়েছে। অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার আশঙকাও রয়েছে। এক্ষেত্রে যুক্তরাজ্যের এগিয়ে আসার কথা জানিয়েছেন লর্ড গোল্ডস্মিথ। এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়,দেশের ২ কোটি ৭০ লাখ মানুষকে বন্যা ও ঘূর্ণিঝড়ের আগাম সতর্কবার্তা প্রেরণের ব্যাবস্থা ও ৪০ হাজার হেক্টর জমি রক্ষার উদ্দেশ্যে যুক্তরাজ্য বাংলাদেশকে সাহায্য করে যাবে। জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় যা অবশ্যই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।

বাসস।

Facebook Comments

Related Articles